বিরামপুরে সরকারের পক্ষে উন্নয়ন কার্যক্রম নিয়ে পূনরায় দলীয় নৌকা প্রত্যাশী ইউপি চেয়ারম্যান-ইয়াকুব আলী

প্রকাশিত: ০৩:৪৭ পি এম , ১৯ নভেম্বর ২০২০

সৎ ও নিষ্ঠার সাথে জনগণের কল্যাণে নিবেদিত প্রাণ চেয়ারম্যান ইয়াকুব আলী। তথ্য অনুযায়ী জানা যায় যে,উপজেলার ৩নং খাঁনপুর ইউনিয়নে মোঃ ইয়াকুব আলী বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কৃষক লীগের থানা সিনিয়র সহ সভাপতি ২বারের সফল চেয়ারম্যান। তিনি জনগণের উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ দ্বায়িত্ব নিয়ে বর্তমান সরকারের নির্দেশ যথাযথ ভাবে পালন করে চলেছেন।

চেয়ারম্যান ইয়াকুব আলী ২র্য় পর্যায়ে চেয়ারম্যানের গুরুত্বপূর্ণ দ্বায়িত্ব পালন করে আসছেন। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন,আমি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সরকারের পক্ষে উইপি ৩নং খাঁনপুর
ইউপি চেয়ারম্যান ও কৃষক লীগ থানা সিনিয়র সহ সভাপতির দায়িত্ব অতি গুরুত্ব সহকারে পালন করে আসছি। ইউনিয়ন ভূক্ত ৯টি ওয়ার্ডে সদস্য বৃন্দের সমন্বয় বিষয়ক আলোচনা সভা ও সরকারের পক্ষ থেকে আসা ত্রান সামগ্রিক বিষয়ে সঠিক ভাবে পর্যালোচনা সাপেক্ষে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছি।

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ মালা যথাযথ ভাবে পালনে বিশেষ ভূমিকা রেখেছি।

সরকারের দিক নির্দেশনা পালনে সার্বিক ভূমিকায় সহযোগিতা প্রদান করেছেন দিনাজপুর ৬,আসনে মাননীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক এমপি ও স্হানীয় দলীয় নেতৃবৃন্দ।

তাদের প্রতি রইল আমার প্রাণ ঢালা একরাশ প্রিতী ও শুভেচ্ছা। আমি তাদের অনুপ্রেরণায় ৩নং খাঁনপুর ইউনিয়নে জনকল্যাণমুখী কার্যক্রম পরিচালনা করতে পেরেছি মর্মে তাদের কে ধন্যবাদ জানাই। তিনি আরও বলেন,আমি সরকারের জাতীয় প্রতিক না পেয়েও নির্বাচনে বিজয় লাভ করেছি ও জনপ্রিয়তায় বর্তমান চেয়ারম্যান। 

পূর্বের ন্যায় এবারও তিনি নৌকা প্রতিক নিয়ে নির্বাচন করতে মাঠে কাজ করার প্রত্যয়ে কাজ করছি। গত নির্বাচনে জয় লাভ করে দেশ ও জনগণের উন্নয়নে কাজ করছি। আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমি জোরাল ভূমিকা পালনে নিজেকে নিবেদিত হিসাবে কাজ করব ইনশাআল্লাহ।

এবারে নির্বাচনে অন্যান্য পদপ্রার্থীর মন্তব্যে তিনি বলেন,বাংলাদেশ সরকার আমাকে নৌকা প্রতিক বরাদ্দ দিলে আমি পূনরায় সংখ্যা গরীষ্টতায় বিজয় লাভ করব ইনশাআল্লাহ। গত বারের নির্বাচনে নৌকা প্রতিক না পেয়েও আমি জনপ্রিয়তায় বিজয় লাভ করে দেশ ও জনগণের উন্নয়নে কাজ অব্যাহত রেখেছি।

২র্য় পর্যায়ে বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্হানীয় মাননীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক এমপি এবং স্হানীয় নেতৃবৃন্দ এবারে আমাকেই নৌকা প্রতিকে সমর্থন প্রদান করবেন মর্মে প্রত্যাশা করছি।

ইউপির ৯টি ওয়ার্ডে সরকারের পক্ষ্য থেকে যে সব অনুদান এসেছে তাহা অতি বিচক্ষণতার সহিত বিতরণ করা সহ নুতন করে বয়স্ক,বিধুবা ভাতা,মাতৃত্বকালীন ভাতা অতি দক্ষতার সহিত বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন।

তারা আরও বলেন ইউনিয়নের মধ্যে রাস্তা,ঘাট,মসজিদ,মন্দির,মাদ্রাসা,এতিম খানা মাদ্রাসা,প্রতিটি ওয়ার্ড পর্যায় হাট, বাজার,পাড়া,মহল্লায় সৌর বিদূৎ আলো সংস্কৃার মূলক ব্যবস্হা ও আর্থিক সহযোগিতায় অতি জোরালো ভাবে কাজ করেছেন আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আমরা পূনরায় ইয়াকুব আলীকে চেয়ারম্যান হিসাবে দেখতে চাই মর্মে জনসাধারণের মন্তব্য জানা যায়। তিনি ব্যক্তিগত ভাবে ১হাজার মাস্ক বিতরণ
সাবান সহ অন্যান্য বাবদে ৪৫ হাজার টাকা মূল্যের দ্রব্যাদী জনগনের উন্নয়নে বিতরণ করেছেন।

কোভিট-১৯,করোনা ভাইরাস মহামারীর মধ্যে সরকারের নিকট থেকে বরাদ্দ চাল,ডাল,প্রতিটি ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়েছেন। করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিগণের সাথে সাক্ষাৎ ও সমবেদনার পাশাপাশি বরাদ্দ প্রদান করেছেন। কোন অসহায়,গরীব,দূস্হ্য,এতিম ব্যক্তিগণ প্রতিনিয়ত তার সাহায্য ও সার্বিক সহযোগিতা গ্রহণ পূর্বক জীবিকা নির্বাহ করছেন।

চেয়ারম্যান ইয়াকুব আলী প্রতিনিয়ত ইউনিয়ন পরিষদে উপস্থিত হয়ে বিপদে পড়া মানুষের সমস্যা সমাধানের পথ সূগোম করে দেওয়াই হচ্ছে তার একমাত্র নেশা। জনসাধারণের প্রতিটি অভিযোগে তিনি সরেজমীনে তদন্ত সাপেক্ষে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করেছেন মর্মে অনেক পরিবার স্বস্তির নিঃশ্বাসে তার প্রতি কৃতজ্ঞতা স্বীকার করেছেন। প্রতি নিয়ত তিনি সকাল ৯-১০ ঘটিকার মধ্যে তার অফিসে উপস্থিত হয়ে একটানা বৈকাল ৫টা পর্যন্ত সময় এমনকি রাত ৮-৯ পর্যন্ত সময় অতিবাহিত করেন। যে সকল জনসাধারণ অফিস সময়ে ইউনিয়ন পরিষদে উপস্থিত হতে পারে নাই তাদের কে তার নিজ বাস ভবনে আসার পথ উন্মুক্ত করে দিয়েছেন যেন কোন মানুষ তার সেবা থেকে বাদ না পড়েন।
ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ড সদস্য ও সদস্যা এবং দলীয় নেতৃবৃন্দের সমন্বয়ে সকল প্রকার উন্নয়ন মূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছেন।

তিনি তার সকল ষ্টাফদের কে জানিয়ে দিয়েছেন কোন জনগণ কোন প্রকার অভিযোগ নিয়ে আসা মাত্র পরিপূর্ণ সেবা যেন দেওয়া হয়,কোন জনগন সেবা না নিয়ে যেন ফেরত না যায় এমনিই নির্দেশ যে কোন সমস্যা হলেই যেন তাকে জানানো বা তার নিকট পাঠিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলেও ভুক্তভোগীরা জানান।

চেয়ারম্যান ইয়াকুব আলী আরও বলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক এমপি মহোদয়ের দিকনির্দেশনা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ পন্থী সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক মন্ডলীর অনুপ্রেরণায় জনগণের উন্নয়নে কাজ করেছি। আওয়ামী লীগে আমার একমাত্র পথচলা,আমি আমার জিবন দিয়ে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে জনসাধারণের কল্যাণে নিজেকে বিলিয়ে দিয়েছি,ভবিষ্যতে মৃত্যুর পূর্ব মহুর্ত পর্যন্ত কাজ করে যাব ইনশাল্লাহ বলে জানায়।


সর্বশেষ

জনপ্রিয় খবর