কিম জং-উনের মৃত্যুর খবর হংকংয়ের টেলিভিশনে

প্রকাশিত: ০৪:১৭ এ এম , ২৬ এপ্রিল ২০২০

সব জল্পনার অবসান ঘটিয়ে মৃত্যু হয়েছে উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের- এমন বিস্ফোরক দাবি করেছে হংকংয়ের একটি টেলিভিশন। যদিও এই দাবির সপক্ষে বা বিপক্ষে কোনো প্রতিক্রিয়া দেয়নি উত্তর কোরিয়া।

উত্তর কোরিয়ার শাসকের শারীরিক অবস্থা খতিয়ে দেখতে সম্প্রতি পিয়ংইয়ংয়ে চিকিৎসক প্রতিনিধি দল পাঠিয়েছে চীন। সেই খবর আসতে আসতে এবার কিমের প্রয়াত হওয়ার খবর দিল হংকংয়ের টেলিভিশন চ্যানেল এইচকেএসটিভি।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমে সম্প্রতি আলোচিত হচ্ছে উত্তর কোরীয় নেতার গুরুতর অসুস্থতার খবর। দাবি করা হয়েছে, দুই সপ্তাহ আগে অস্ত্রোপচার হয়েছে কিম জং উনের। তারপর থেকেই মধ্য তিরিশের নেতার শরীর ভালো যাচ্ছে না। এরমধ্যেই দক্ষিণ কোরিয়ার সংবাদমাধ্যমে জানানো হয়, সংকটজনক অবস্থায় রয়েছেন কিম।

এমনকি উত্তর কোরিয়ার শাসকের মৃতদেহ শায়িত রয়েছে, এই ছবিও দেখা গেছে হংকং টিভিতে। যদিও এর সত্যতা যাচাই হয়নি। পরিস্থিতির ওপর নজর রাখলেও কিমের প্রয়াণ বিষয়ে কোন মন্তব্য করেনি ওয়াশিংটন।

মার্কিন সাংবাদিক ‌অ্যাডাম হাউসলি টুইট বার্তায় বলেছেন, হংকংয়ের স্যাটেলাইট টেলিভিশন এইচকেএস টিভি জানিয়েছে মৃত্যু হয়েছে কিমের। তবে এখনো যুক্তরাষ্ট্র এটি নিশ্চিত করেনি। প্রসঙ্গত, অত্যধিক ধূমপান, স্থূলতাসহ বেশ কিছু সমস্যা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই ভুগছিলেন কিম জং উন। তার উপর ছিল মাত্রাতিরিক্ত কাজের চাপ। 

এর জেরেই হৃদযন্ত্রে অস্ত্রোপচার এবং তারপর থেকেই গুরুতর অসুস্থ কিম জং উন। গত দু’সপ্তাহের বেশি সময়ে তাকে জনসমক্ষে দেখা যায়নি।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের একাংশের দাবি, কিমের পর তার আসনে বসবেন বোন কিম ইয়ো জং। যিনি বর্তমানে দাদা কিম জং উনের মুখ্য পরামর্শদাতা। ২০১৮ সালে উত্তর কোরিয়ার পলিটব্যুরোতেও মনোনীতও হন তিনি। উত্তর কোরিয়ার সবচেয়ে ক্ষমতাশালী মহিলা বলা হয় কিম ইয়ো জং কে।

সূত্র- হংকং টিভি।


সর্বশেষ

জনপ্রিয় খবর