পরকিয়া প্রেমের ফাঁদে ফেলে এক বিজিবি’র বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

প্রকাশিত: ০১:০৩ পি এম , ০৯ আগস্ট ২০২১

দিনাজপুরের বিরামপুরে পৌর শহরের কলেজ বাজার আদর্শপাড়া এলাকার এক সন্তানের জননী বর্ষা আক্তারকে পরকিয়া প্রেমের ফাঁদে ফেলে তার কাছ থেকে বিজিবি'র ল্যান্স নায়েক জিয়াউর রহমান ২ লক্ষ ৪৫ হাজার টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগে রংপুর সেক্টর ৫১ বিজিবির অধিনায়ক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন ওই ভুক্তভোগী নারী।

এতে করে বর্ষা আক্তার পাওনা টাকা চাইতে গেলে বিজিবি ল্যান্স নায়ক জিয়াউর রহমান তাকে অকথ্য ভাষায় গালীগালাজ এবং পরকিয়া প্রেমের সর্ম্পকের ছবি ও ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি প্রদান করলে গত ১৯ মে তার তার বিরুদ্ধে বিরামপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়।

বর্ষা আক্তার জানান, রংপুর সেক্টরের ৫১ ব্যাটালিয়ান অধিনায়কের আওতায় কর্মরত বিরামপুর কলেজ বাজার আদর্শপাড়ার ল্যান্স নায়েক জিয়াউর রহমানের সাথে আমার স্বামী রাশেদ মোল্লার পূর্ব পরিচিত বন্ধুত্বের সম্পর্ক। এরই সূত্র ধরে তার সাথে মোবাইল ফোনে ও ইমুর মাধ্যমে পরকিয়া প্রেমের সর্ম্পক গড়ে ওঠে।

এরপর সে আমার কাছ থেকে প্রথমে নগদ ৪৫ হাজার টাকা ধার নেয়।

এই টাকা পরের দিন দেওয়ার কথা থাকলেও পূনরায় জরুরী ভিত্তিতে ন্যাশনাল ব্যাংকের বিরামপুর শাখা থেকে আবারো নগদ দুই লক্ষ টাকা তুলে আমার স্বামীকে না জানিয়ে এই টাকা তাকে ধার দেই।

পরবর্তীতে পাওনা টাকা চাইতে গেলে জিয়াউর রহমান আমাকে অকথ্য ভাষায় গালীগালাজ করে এবং অশ্লিল ছবি ও ভিডিও ইন্টারনেটে ছেড়ে দেওয়ার হুমকি দেয়।

বর্ষার স্বামী রাশেদ মোল্লা জানান, সে বন্ধুর পরিচয় আমার স্ত্রীর নিকট থেকে অসৎ উদ্দেশ্যে ২ লক্ষ্য ৪৫ হাজার টাকা ধার নেয়। আমার স্ত্রী সহজ সরল হওয়াই তাকে ভুলিয়ে-ভালিয়ে তার কাছ থেকে টাকা ধার নিয়ে তা আত্মসাৎ করে।

রংপুর সেক্টরের ৫১ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মাদ ইছাহাক জানান, অভিযোগকারীকে সিভিল জর্জ আদালতে মামলা করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে ল্যান্স নায়েক জিয়াউর রহমানের সাথে একাধিকবার মুঠোফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা হলেও তার ফোনের সংযোগ পাওয়া যায়নি।

 


সর্বশেষ

জনপ্রিয় খবর